Breaking News

ভিডিও ক্লাসে এডুয়ার্দো-সালামরঞ্জনদের দোষক্রুটি শুধরে দিলেন খালিদ জামিল । বর্তমান


নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বৃহস্পতিবার ডার্বির আগে ইস্ট বেঙ্গলে হল ভিডিও ক্লাস। মনিটরে ছবি দেখিয়ে আইজল এফ সি ম্যাচে খেলা ছেলেদের ভুল ত্রুটি শুধরে দিলেন খালিদ জামিল। উল্লেখ্য, এই ক্লাসে ইস্ট বেঙ্গলে একটানা আট বছর খেলা গুরবিন্দার সিং কিংবা এই মরশুমের অধিনায়ক অর্ণব মণ্ডলকে দেখা যায়নি। খালিদের জামানায় জাতীয় দলের শিবিরে থাকা বাঙালি অর্ণব ব্রাত্য। এর একটি কারণ হল ক্লাবের এক শীর্ষ কর্তা বিশ্বাস করেন গত বছর অর্ণব মন্ডলের ব্যর্থতায় ইস্ট বেঙ্গল আই লিগে তৃতীয় হয়। অর্ণবকে শিলিগুড়ি ডার্বিতে খেলানো হয়নি। রবিবার হবে এমন কোনও ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি বৃহস্পতিবার। গুরবিন্দরকেও সেই অনুশীলনে গুরুত্ব দিতে দেখা গেল না। তবে ক্লাবে আলোচনা চলছে এডুয়ার্ডোর সঙ্গে গুরবিন্দার সিংকে স্টপার করে প্রথম একাদশ গড়া হোক। অনূর্ধ্ব-২২ কোটায় মেহতাব সিংকে ২০ মিনিট খেলিয়ে রাইট ব্যাকে নামানো হোক সালামরঞ্জন সিংকে। এই প্রস্তাব নিয়ে ক্লাবের শীর্ষ কর্তারা আলোচনায় বসবেন কোচের সঙ্গে।
মিডিয়া সেন্টারে হওয়া ভিডিও ক্লাসে খালিদ বলেন,‘রি-স্টার্ট মুভমেন্ট থেকে আমরা গোল খেয়েছি। সেট পিস মুভমেন্টের সময়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। বারবার গোল খাওয়ার মুহূর্তের ফুটেজ দেখানো হয়।’
আইজল এফ সি ম্যাচে নতুন গোলরক্ষক মির্শাদকে নিয়েও আলোচনা ইস্ট বেঙ্গল সমর্থকদের মধ্যে। দুটি গোলের সময়ে তিনি কার্যত ছোট বক্সে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তবে খালিদ জামিল তাঁর পাশেই থাকছেন। তিনি এদিনের ক্লাশে বড় করে দেখান ৮৮ মিনিটে ডুডোসের কাছ থেকে মির্শাদের একের বিরুদ্ধে এক গোল বাঁচানোর দৃশ্যটি। একটি ব্যাপার পরিস্কার যে কোচ হিসাবে খালিদ যাদের নিয়েছেন তাঁদের উপরই আস্থা রাখছেন। গত বছর যাদের দুই বছরের চুক্তি ছিল সেই লুই ব্যারেটো, গুরবিন্দার সিং, অর্ণব মণ্ডলরা ব্রাত্য। তিনি যেভাবে ইস্ট বেঙ্গল তাঁবুর কোচেস রুমে না বসে রঞ্জন চৌধুরি, গাসির্য়ার মতো সাপোর্ট স্টাফদের এড়িয় যাচ্ছেন তা নিয়েও ক্লাবে বিস্তর প্রশ্ন। খালিদ যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেন তাঁর আনা গোলরক্ষক কোচ সিদ্দিকির সঙ্গে আলোচনা করে। এমনকী প্রথম ম্যাচে ড্র করার পর এখনও মনোরঞ্জন ভট্টাচার্যর মতো ফুটবল ব্যাক্তিত্বর সঙ্গেও আলোচনা করেননি।
গুরবিন্দর আর রালতে রবিবার প্রথম একাদশে খেলবেন কিনা তা বোঝা যাবে শুক্রবার অনুশীলনের পর। খালিদ এদিন আইজল এফ সি ম্যাচে খেলা ফুটবলারদের প্র্যাকটিস করাননি। ওঁরা ছিলেন সহকারী কোচ রঞ্জন চৌধুরির অধীনে। রিজার্ভ বেঞ্চের ফুটবলারদের নিয়ে বেশি সময় কাটান খালিদ।
ফেসবুক ক্রমাগত আমাদের গ্রুপ শেয়ারিং ব্লক করে চলেছে, সুতরাং, খেলাধুলা সম্পর্কিত সমস্ত খবর সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইকের মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন, পোস্টটি পছন্দ হলে শেয়ার করতে অবশ্যই ভুলবেন না কিন্তু, লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজে
[pullquote align="normal"]
loading...
loading...
[/pullquote]

No comments