Breaking News

রহিতকে দ্রুত ফেরাতে হবে নাইটদের

ওয়াংখেড়েতে আজ মুখোমুখি মুম্বই-কলকাতা



মুম্বই, ৫ মে: আইপিএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আজ ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও কলকাতা নাইট রাইডার্স। ন’টি ম্যাচ খেলে কেকেআর চারটিতে হেরে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। সমসংখ্যক ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সংগ্রহ মাত্র ৬ পয়েন্ট। অর্থাৎ এই ম্যাচের ফলের ওপর দুই দলের প্লে-ওফে ওঠার ভাগ্য অনেকটাই নির্ভর করবে।
গত ম্যাচে ইডেনে চেন্নাই সুপার কিংসকে ৬ উইকেটে হারানোর পর মনোবল অনেকটাই তুঙ্গে নাইটদের। ব্যক্তিগত নৈপুণ্য নয়, দলগত সংহতি নাইট রাইডার্সের সাফল্যের মূল মন্ত্র। বল হাতে তরুণ পেসার শিবম মাভি হোক কিংবা ক্যারিবিয়ান স্পিনার সুনীল নারিন সিএসকে ম্যাচে অসাধারণ পারফরম্যান্স মেলে ধরেছিলেন। ব্যাট হাতেও মূল্যবান রান যোগ করেছিলেন নারিন। তবে অনূর্ধ্ব-১৯ ভারতীয় দলের ক্রিকেটার শুভমান গিলের ৩৬ বলে ৫৭ রানের অপরাজিত ইনিংস মুগ্ধ করেছে গোটা ক্রিকেট দুনিয়াকে। অনেকেই তাঁকে ভবিষ্যতের তারকা বলছেন।

আইপিএলের ইতিহাসে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে কেকেআরের সাফল্য মোটেই ভালো নয়। নাইটদের সেই দিকটা মাথায় রাখতে হবে। প্রথম দিকে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ব্যাটিং সেভাবে জমাট লাগছিল না। অধিনায়ক রহিত শর্মার খেলায় ধারাবাহিকতার বড় অভাব দেখা যাচ্ছিল। তার খেসারত দিতে হয়েছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে। গতবারের চ্যাম্পিয়নরা একের পর এক ম্যাচ হেরে ক্রমশ খেতাব ধরে রাখার লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়েছে। 
তবে এবারের কলকাতা নাইট রাইডার্স দলটি বড়ই আনপ্রেডিক্টেবল। একটা ম্যাচ জিতলে পরের দু’টি ম্যাচে হারে। তাই দীনেশ কার্তিকের উচিত সাফল্য ধরে রাখার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া। কেকেআরের ব্যাটিং বেশ জমাট দেখাচ্ছে। ওপেনিং জুটিতে কিন্তু সুনীল নারিন ও ক্রিস লিন এখনও বড় পার্টনারশিপ গড়ে তুলতে পারেননি। একটা ম্যাচে নারিন রান পেলে ব্যর্থ হচ্ছেন লিন। দু’জনেই যদি ক্লিক করে যান, তাহলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে চাপে ফেলা অনেক সহজ হবে কেকেআরের পক্ষে। আগেও লিখেছি, আবার বলছি সুনীল নারিনের অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সই কেকেআরের ভাগ্য ঠিক করে দেবে। যতই তাঁর বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন উঠুক, ক্যারিবিয়ান মিস্ট্রি স্পিনারটির রহস্য উন্মোচনে ব্যর্থ তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানরা। কেকেআর বিপক্ষ দলের রানের গতিতে লাগাম দিতে নারিনকে ব্যবহার করছে। 

নীতীশ রানা ফিট হয়ে প্রথম একাদশে কামব্যাক করলে তিনি কত নম্বরে ব্যাট করবেন? গত ম্যাচে নীতীশের অনুপস্থিতিতে চার নম্বরে ব্যাট করে সফল হয়েছিলেন শুভমান গিল। তাই কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্টকে কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। নীতীশ ফিরলেও শুভমানকেই চার নম্বরে নামানো উচিত। পাঁচ নম্বরে দীনেশ কার্তিক। ছয়ে নীতীশ রানা। আন্দ্রে রাসেল যদি ফর্মে থাকেন, তাহলে বিপক্ষ দলের ঘুম উবে যাবে। রাসেল ব্যাটে ঝড় তুলতে পারেন। তৃতীয় পেসারের কাজটি করে দিচ্ছেন। এই ম্যাচে হয়তো মিচেল জনসনকে বসিয়ে টম কারানকে খেলানো হতে পারে। জনসন প্রচুর রান দিয়ে ফেলছেন। কেকেআরের ভাগ্য কিন্তু স্পিনারদের হাতেই। পীযূষ চাওলা, কুলদীপ যাদব, সুনীল নারিন- তিন স্পিনার ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দলকে সাফল্য এনে দিচ্ছেন।

ঘরের মাঠে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স বিপুল দর্শক সমর্থন পাবে। গত ম্যাচে জেতার পর রহিত শর্মাদের ঘিরে ফের উন্মাদনার পারদ চড়ছে। মুম্বইয়ের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সূর্যকুমার যাদব দারুণ ফর্মে আছেন। ইতিমধ্যেই ৩৪০ রান করে ফেলেছেন। এভিন লুইস, ইশান কিষাণরা সেভাবে নজর কাড়তে পারছেন না। তবে একটা জিনিস প্রমাণিত, রহিত শর্মা বড় রান পেলে মুম্বই ম্যাচ জিতছে। তাই কেকেআর বোলারদের দ্রুত মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ককে ডাগ-আউটে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করতে হবে। পান্ডিয়া ভাইরা মুম্বই দলটির বড় অস্ত্র। হার্দিক ও ক্রুনালের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স অনেক হিসাব উলটে দিতে পারে। তবে ফিটনেস সমস্যায় দু’জনেই ভুগেছেন শুরুতে। গত ম্যাচে তাঁদের ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছে ফর্মে ফিরছেন। কিয়েরন পোলার্ডকে বসিয়ে খেলানো হচ্ছে জেপি ডুমিনিকে।

ফেসবুক ক্রমাগত আমাদের গ্রুপ শেয়ারিং ব্লক করে চলেছে, সুতরাং, খেলাধুলা সম্পর্কিত সমস্ত খবর সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইকের মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন, পোস্টটি পছন্দ হলে শেয়ার করতে অবশ্যই ভুলবেন না কিন্তু, লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজে
[pullquote align="normal"]
loading...
loading...
[/pullquote]

No comments