Breaking News

বাগানে অব্যাহত অভ্যন্তরীণ অশান্তি, এর মধ্যেই সাংবাদিক সম্মেলন সত্যজিত–দেবাশিসদের | আজকাল


আজকাল ওয়েবডেস্ক: অব্যাহত রইল মোহনবাগান ক্লাবের অভ্যন্তরীণ ডামাডোল। এদিন কলকাতা ক্রীড়া সাংবাদিক ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠকে সাংবাদিক সম্মেলনে করলেন মোহনবাগানের পদত্যাগী ১৯ জন কর্মকর্তা। এর মধ্যে ছিলেন ফুটবল সচিব সত্যজিৎ চ্যাটার্জি, সহ–সচিব সৃঞ্জয় বসু ও অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত। এদিনও বাগান সচিব অঞ্জন মিত্রের বিরুদ্ধে ক্লাবের কাজ ঠিকমতো না করার অভিযোগ তোলেন পদত্যাগী কর্মকর্তারা। প্রথমেই ফুটবল সচিব  সত্যজিৎ চ্যাটার্জি বলেন, ‘‌টুটু বসু যখন পদত্যাগ করলেন, তখন একবারও সচিব তাঁর সঙ্গে কথা বলতে চাননি। তিনি একবার কথা বললেই সব মিটে যেত, কিন্তু সেটা হয়নি। ’‌ সম্প্রতি সত্যজিতকে উদ্দেশ্য করে বাগান সচিব বলেছিলেন, ‘‌কে সে?‌’ এদিন সেই প্রশ্নেরও উত্তর দিলেন পদত্যাগী ফুটবল সচিব। বলেন, ‘‌আমি মোহনবাগানে ১৫ বছর ধরে খেলেছি। নিজের জীবনটাই ক্লাবকে দিয়েছি। সদস্য–সমর্থকরাই এই প্রশ্নের উত্তর দেবে, যে কে আমি।’ 

এরপর বক্তব্য রাখেন পদত্যাগী অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত। তিনি বলেন,‌ ‘‌অঞ্জন মিত্র কীভাবে বললেন আমরা নতুন যে কোম্পানী তৈরি করেছি, সেই সম্পর্কে কিছু জানেন না?‌ এদিকে বেশিরভাগ চেকেই তাঁর সই রয়েছে। তিনি তো আমাদের সঙ্গে কথাই বলছেন না। ১৯৯০ সাল থেকে টুটু বসু এবং অঞ্জন মিত্র একসঙ্গে ক্লাব চালাচ্ছেন। অঞ্জনদাই আমাকে শিখিয়েছেন, ক্লাবকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে সবার সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করতে হবে। তিনি আরও বলেছিলেন, মোহনবাগান ক্লাবে কাজ করাটা গর্বের ব্যাপার। সবার সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করবে। সদস্য, সমর্থকদের সঙ্গে ভালমতো ব্যবহার করতে হবে। আশা করি এই ম্যানেজমেন্টও সেই পথেই হাঁটবে।’ এখানেই শেষ নয়। পদত্যাগী অর্থসচিব আরও যোগ করেন, ‘‌যাঁরা ক্ষমতায় আছেন, তাঁদের ঠিক করতে হবে তাঁরা কোন গাড়িতে উঠবেন এবং কোন পথে যাবেন। আমি গাড়ি ঠেলতে কিংবা চালাতে রাজি। কিন্তু তাঁদের আগে সঠিক গাড়িটি এবং সঠিক রাস্তাটি বেছে নিতে হবে। এই ক্লাবটি সদস্যরা চালান। আগামিদিনে ক্লাব কীভাবে চলবে, সেটাও তাঁরা ঠিক করবেন। কেউই চায় না মোহনবাগান ক্লাব এরকম দুরবস্থার মধ্যে দিয়ে যাক। অঞ্জনদা যেভাবে ইচ্ছা ক্লাব চালাতে পারেন।’ 

তবে দেবাশিসের কথায় পরিষ্কার‌, আগামিদিনে তাঁরা অঞ্জন মিত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করতে পারেন। কিন্তু সেক্ষেত্রে বেশিরভাগ ক্ষমতা তাঁদের হাতেই দিতে হবে। এদিকে, আগামী ৪ মে দেশে ফিরবেন টুটু বসু। তারপরই পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক হতে পারে বলে মনে করছে ফুটবল মহল।  । এর পাশাপাশি আসন্ন কয়েকদিনে আরও বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা পদত্যাগ করতে পারেন, এমনটাই আশঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে সাংবাদিক সম্মেলনের পরই দেবাশিস দত্ত আগামী মরসুমের জন্য ২৫ জন ফুটবলারের নাম জানিয়ে দেন। বলেন, ‘‌পাঁচ সদস্যের কমিটি মিলে এই দল গঠন করেছে। আশা করি ম্যানেজমেন্ট এই খেলোয়াড়দের কন্ট্র্যাক্টের ব্যাপারগুলি খেয়াল করবেন।’ যদিও এক্ষেত্রেও সচিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তিনি বলেন, অঞ্জনদা শেষ বৈঠকেও খেলোয়াড়দের সইয়ের ব্যাপার নিয়ে এবং শেষ তিন মাস খেলোয়াড়দের পেমেন্ট না পাওয়া নিয়ে তাঁদের সঙ্গে কোনও কথা বলেননি। এখন দেখার আগামিদিনে এই জল কতদূর গড়ায়।

এবার এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এখনও পর্যন্ত কোন কোন খেলোয়াড় বাগানে সই করেছেন :
শিলটন পাল, শঙ্কর রায়, কিমকিমা, অভিষেক আম্বেকার, অরিজিৎ বাগুই, জিতেন মুর্মু, আজহারউদ্দিন মল্লিক, সৌরভ দাস, শিলটন ডি সিলভা, তীর্থঙ্কর সরকার, অবিনাশ রুই দাস, ব্রিটো, গুরজিন্দার কুমার, আমে রানাওয়াডে, মঈনুদ্দিন খান, উইলিয়াম লালনুনফেলা, হেনরি কিসেকা, ডিপান্ডা ডিকা, কিংসলে, রিকার্ডো কার্ডোজো, মৈনাক আকুলি, ড্যারেন ক্যালডেইরা, পিন্টু মাহাত, ইয়ুটা কিনোয়াকি।‌    ‌ 
এদের মধ্যে কিনোয়াকি বাদে সকলেই কলকাতা লিগ থেকে খেলবেন বলে জানা গিয়েছে। 
ফেসবুক ক্রমাগত আমাদের গ্রুপ শেয়ারিং ব্লক করে চলেছে, সুতরাং, খেলাধুলা সম্পর্কিত সমস্ত খবর সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইকের মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন, পোস্টটি পছন্দ হলে শেয়ার করতে অবশ্যই ভুলবেন না কিন্তু, লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজে
[pullquote align="normal"]
loading...
loading...
[/pullquote]

No comments